যুদ্ধ ও ইতিহাস নিয়ে মুভি রিভিউ পর্ব_ ২

যুদ্ধ ও ইতিহাস নিয়ে মুভি রিভিউ পর্ব: ২

গত পর্বে দুইটি মুভি রিভিউ দিয়েছিলাম যুদ্ধ ও ইতিহাস সম্পর্কে। আজকে ও আরো কয়টি মুভি রিভিউ দিবো। আশা করি বরাবরের মতো ভালোই লাগবে আপনাদের কাছে। চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

১. Beast of war মুভি রিভিউ

Genre: War,Drama
IMDB:6.8
Language: English/Afghani
Year: 1988

IMDB রেটিং টা হাল্কা একটু কম আসায় অনেকটা হেলাফেলার মাঝে লেপটপের এক কনে পড়েছিল মুভিটা সেদিন হাতে সময় পেয়ে দেখা শুরু করলাম। শুরুটা দেখেই ওমা! আমিতো মনে মনে এমনি কিছু খুজছিলাম। ফিল্মের শুরুর দশ মিনিট পুরাই স্তব্ধ করে দেয়ার মতো। রাশিয়া আফগানিস্তানে প্রচুর বর্বরতা চালিয়েছে এ নিয়ে এর আগেও ফিল্ম দেখেছি কিন্তু এখানে সেই বর্বরাতেক চরম রুপে নিয়ে গিয়েছে ডিরেক্টর,এত্ত ব্রুটাল টেনস আর রিয়েলিস্টক যা কল্পনার বাহিরে,শুরু থেকে টানা শেষ পর্যন্ত নার্ভস ব্যাস্ত রাখার মতো,পাশাপাশি এক ধরনের নিখুত ও ভৌতিক সাউন্ড ব্যাবহার হয়েছে যা যুদ্ধের আসল ভয়াবহতাটাকে তুঙ্গে তুলেধরেছে।

(হাল্কা স্পয়লার)

এখানে ফিল্মের শুরুতেই একদল রাশিয়ান সৈন্য ভারি অস্ত্র শস্ত্র ও টেংক নিয়ে আফগানিস্তানের এক গ্রামের ওপর চরাও হয় প্রায় ৭/৮ টার মত টেংক,গ্রামটিতে ঢুকেই গ্রামের ঘর গুলির ওপর টেংক থেকে গোলা বর্ষন শুরু করে। গ্রামের বুড়ো থেকে শুরু করে নারি, শিশু, কাউকেই নিস্তার দেয়না,জিবিত মানুষের ওপর টেংক চড়ায় দেয়, এমনকি যাওয়ার সময় গরু ছাগল যা ছিল সব কিছু গুলি করে মেরে ফেলে,মসজিদে আগুন লাগিয়ে দেয়,গ্রামের পানি সরবরাহ করার কুপ গুলোতে পর্যন্ত বিষ মিশিয়ে দেয়। কিছুক্ষণ পরে আশেপাশের গ্রাম গুলি থেকে বেশ কিছু মুজাহিদিন গ্রামে প্রবেশ করে। তাদের গ্রামের এই অবস্থা দেখে তাদের প্রধান এর প্রতিশোধ নেয়ার প্রতিজ্ঞা করে এখান থেকেই ফিল্মের মুল কাহিনি শুরু হয়। রাইটিং,মিউসিকের সাথে অভিনয়টাও বেশ ভালো ছিল,বিশেষ করে প্রধান নায়কের চরিত্রে অভিনয় করা দাউদ ও ভারতীয় অভিনেতা কবির বেদির অভিনয়টা। খুব সুন্দর সিনেমাটগ্রাফি, আশাকরি সবার ভালো লাগবে।

২. Ike: Countdown to D-Day মুভি রিভিউ

Genre: War, Drama,History
IMDB:7.2
Country: USA
Year:2004

আমেরিকা ও এলাইড ফর্সের হাতে ছিল জেনারেল আইজেনহায়ার,জার্মানির ছিল রোমেল। বুদ্ধি পলিটিকস আর রণকৌশলের খেলাটা বেশ ভালই জমেছিল, ইউরোপ যুদ্ধ জয়ে দু দলই নিজেদের রণকৌশল এক ধাপ এগিয়ে রাখার চেষ্টা করে আসছিল। বিশেষ করে ইংল্যান্ড ও আমেরিকার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেয়াটা ছিল জটিল। এরকম জটিল সিদ্ধান্তের মধ্যে একটা ছিল মার্কিন সেনাদের ফ্রান্সের ওমাহা বিচে অবতরণ। ওমাহা বিচের যুদ্ধটা saving private ryan সিনেমাটাতো ইতিমধ্যে অনেকেই দেখেছেন,সেই দুঃসাহসি অভিযানের পেছনে যারা মাথা খাটিয়েছিল এই ফিল্ম তাদেরকে নিয়ে। এখানে যুদ্ধ জিততে কিভাবে, কখন,ঠিক কোন জায়গায় সেনাদের যুদ্ধে নামানো হয়েছিল তা দেখানো হয়েছে। সিনেমাটি বৃটিশ ও আমেরিকান প্রস্পেক্তিভে দেখানো হয়েছে এখানে জেনারেল আইজেনহায়ারের রোলে অভিনয় করেছেন টম শ্যালক বলতেই হয় বেশ মানানসই কেরেকটার দেয়া হয়েছিল এবং তিনি একেবারে সাক্সেস হয়েছেন। এখানে Winston Churchill এর একটা লম্বা রোল আছে যুদ্ধের শেষের দিকে চার্চিলের কয়েকটা শাস্রুদ্ধকর পদক্ষেপ নেয়াটা খুব দারুন ভাবে দেখানো হয়েছে। যুদ্ধ প্রায় নেই বললেই চলে আসলে এটা পলিটিকাল ফিল্ড কে কেন্দ্র করে তাই শুধু যুদ্ধ দেখব এটা মনে করে দেখতে বসলে এই মুভি আপনার জন্য নয়। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বেশ টানটান উত্তেজনা ছিলআসলে প্লটটাই উত্তেজনাকর। দারুন একটা ফিল্ম।

৩. Hurricane মুভি রিভিউ

Genre: War,Drama,History
IMDB:6
Country: Poland
Language: English, Polish
Year:2018

সিনেমাটা মোটামুটি ভালই ছিল তবে আরও ভালো করা যেতে পারতো যদি আকাশপথে একশন সিন গুলিকে আরও একটু accuracy দেয়া যেতো।
Hurricane দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকে কেন্দ্র করে নির্মিত একটি সিনেমা,এখানে পলিশ ফাইটার পাইলটদের আকাশপথে যুদ্ধটাই মুল কেন্দ্র বিন্দু ছিল। এখানে মুল অভিনয় মানে লিড রোলে অভিনয় করেছে গেম অব থ্রন্স খ্যাঁত iwan rheon বা যাকে আমরা John bolton হিসেবেও চিনি খুব সুন্দর ভাব গম্ভির অভিনয় ছিল বিশেষ করে তার অভিনয়টাই ভালো লেগেছে। সিনেমা সম্বন্ধে বলতে গেলে আহামরি কিছু না হলেও মোটামুটি ভালো লেগেছে। Could have been more better and its okay not too good not bad just okay।
বিশ্বযুদ্ধে জার্মানিকে চেলেঞ্জ করা অতটা সহজ ছিলনা আকাশপথে তো একেবারেই নয় কারন সমগ্র ইউরোপ জুড়ে সবচেয়ে অভিজ্ঞ আর নিখুত পাইলট জার্মানিরই বেশি ছিল যার কারনে আকাশপথে তাদের টেক্কা দেয়াটা বৃটেনের জন্য এক সময় প্রায় অসম্ভব হয়ে দাড়ায়। এরই মধ্যে পলেনড থেকে একদল পাইলট জার্মানির বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের হয়ে যুদ্ধ করতে ইংল্যান্ড পৌছায়। এদের মধ্যে সবচেয়ে অভিজ্ঞ ছিল Bolton। তাকে ও তার টিমকে হাল্কা ট্রেনিং দিয়েই আকাশপথে যুদ্ধে পাঠায় ইংল্যান্ড, এই হল ফিল্ম সম্বন্ধে প্রাথমিক ধারণা। যারা এরকম দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের আকাশপথের যুদ্ধ দেখতে পছন্দ করেন তারা The Red baron, 303 squadron এই ফিল্ম দুটোও ট্রাই করতে পারেন।

আজকেও তিনটি মুভি রিভিউ লিখেছি। আশা করি ভালো লাগবে। ভালো লেগে থাকলে কমেন্ট করতে ভুলবেন না।

About the Author: Amar Subtitle

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *